Home  /  2021  /  ফেব্রুয়ারী

আপনি কি এমন একটি চেয়ার খুঁজছেন, যেটি একের ভেতর দুই কাজ সারবে?কেমন হয়, যদি সুন্দর একটি চেয়ারকে মুহুর্তই একটি উপযোগী মইতে রুপান্তরিত করা যায়?সিঁড়ির মত ব্যবহার করা যায়? বাজারে এসেছে আপনার মনের মতই সেই চেয়ার কাম ল্যাডার, Dunham-107। যেটি আপনাকে দেবে

কে না চায় নিজের বাড়ি বা অফিসকে নান্দনিক ভাবে সাজাতে? যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে? দিন দিন কিন্তু মানুষ অভিজাত ও আধুনিক আসবাবের দিকে ঝুঁকে পড়ছে। যেগুলো একদিকে আরামদায়ক ও অন্যদিকে সময়োপযোগী হবে।এজন্যই স্মার্ট ও রুচিসম্মত মানুষের প্রথম পছন্দ লবি চেয়ার

আপনি কি নিজের বাড়িকে অভিজাত আসবাব দিয়ে সাজাতে চাচ্ছেন? কেনই বা চাইবেন না? যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলা মানুষেরা সব সময় চায় নিজের চারপাশকে নান্দনিক রুপ দিতে। আপনি কারো থেকে আলাদা নন। আর অভিজাত ও আধুনিক আসবাবের এর চাহিদা দিন দিন

কর্মব্যস্ত দিনের শেষে নিজের সাজানো-গুছানো পরিপাটি শান্তির নীড়ে ফিরে প্রশান্তির ছোঁয়া খুঁজতে কার না ভালো লাগে? তাই সবাই চান একান্তই নিজের রুচি আর পছন্দের সাথে তাল মিলিয়ে আপনালয়টিকে সাজিয়ে নিতে। একটা সময় এমন ছিল,ঘর সাজানোতে ব্যবহার হতো ভারি ডিজাইন কিংবা কাঠের

আমরা যারা ফ্ল্যাট বাসায় থাকি তাদের সকলের কাছেই ডাইনিং রুম একটি অতি পরিচিত ও প্রিয় স্থান। ডাইনিং রুম গুলো তৈরীর উদ্দ্যেশ্যই থাকে সবাই এক সাথে বসতে পারার জন্য, বসে খাওয়া দাওয়ার পাশাপাশি একটু আরাম করতে পারার জন্য। ডাইনিং রুম গুলো

ডাইনিং রুমের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য কিংবা গুরুত্বপূর্ণ আসবাবপত্রের মধ্যে ডাইনিং টেবিল অন্যতম। ডাইনিং রুমের মূল কেন্দ্রবিন্দুই হলো এই ডাইনিং টেবিল। সকাল, বিকাল কিংবা রাতের ভোজনে যেখানে পরিবারের সকল সদস্য একত্রিত হয়। শুধু যে পরিবারের সদস্যতেই এর কাজ চুকে যায় এমন কিন্তু নয়।

আপনার বাসায় কি জায়গার স্বল্পতা? মনের মত ফার্নিচার দিয়ে ঘর সাজাতে চাচ্ছেন কিন্তু পারছেন না? প্রয়োজনীয় সব ফার্নিচার রাখারই জায়গা হচ্ছে না? এটা কিন্তু নতুন কিছু না। আপনার মত হাজারো মানুষ রয়েছেন যারা একই সমস্যার সমাধান খুঁজে বেড়াচ্ছেন। তবে চিন্তার কিছু

ঘরের ভেতরের একটা সুন্দর ও মার্জিত ডেকোরেশন এখন আর কোন বিলাসিতা হয়, বরং বদলে গিয়েছে প্রয়োজনীয়তায়। একটি সুন্দর ও পরিপাটি ঘরের মাধ্যমে ফুটে ওঠে আপনার স্বাদ ও রুচির বহিঃপ্রকাশ, যা মোটেও হালকা ভাবে নেয়ার বিষয় নয়, বরং আপনার ব্যাক্তিত্বের একটি

আজকের দিনে চাকরি করেনা এমন কাউকে হয়তো খুঁজে পাওয়া যাবে না। এজন্য সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলে কর্মজীবী মানুষের কর্মব্যস্ততা। কখন অফিস যাবে, কিভাবে যাবে, কাজ কখন শেষ হবে আবার বাসায় কখন আসবে - এইসব নিয়ে প্রায় সবাইকে চিন্তা করতে

সময় বদলাচ্ছে, সাথে সাথে পরিবর্তন হচ্ছে চাহিদা ও যোগানের। একই সঙ্গে ভ্যালু বাড়ছে স্থান ও স্পেসের। কিন্তু থেমে নেই অগ্রগতি ও উন্নয়ন। সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে সমগ্র বিশ্ব। এই সকল কিছুর সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি আমরাও। আমাদের